গাজরের পুষ্টি ও উপকারিতা

গাজরের পুষ্টি ও উপকারিতা

গাজরের পুষ্টি উপাদান ও উপকারিতা Nutrition and Benefits of Carrot
গাজর শীতকালীন মজাদার সবজিগুলোর মধ্যে অন্যতম। এটিকে ফল ও সবজি দুভাবেই ব্যবহার করা যায়। শীতে প্রচুর গাজর জন্মায় বিধায় এ সময় দামও অনেক কম থাকে। গাজর গাছ Apiaceae পরিবারভুক্ত। এর আদি নিবাস দক্ষিণ-পশ্চিম এশিয়া এবং ইউরোপ। পৃথিবীর প্রায় অর্ধেক গাজরই চীন দেশে উৎপাদিত হয়। নানা প্রকার খাদ্য তৈরিতে গাজর ব্যবহৃত হয়, বিশেষ করে সালাদে এর ব্যবহার ব্যাপক।

গাজরের পুষ্টিগুণঃ প্রতি ১০০ গ্রাম গাজরে আছে ক্যারোটিন ১০, ৫২০ মাইক্রোগ্রাম, শর্করা ১২.৭ গ্রাম, আমিষ ১.২ গ্রাম, জলীয় অংশ ৮৫.০ গ্রাম, ক্যালসিয়াম ২৭.০ মিলিগ্রাম, আয়রন ২.২ মিলিগ্রাম, ভিটামিন বি১ ০০.০৪ মিলিগ্রাম, ভিটামিন বি২ ০.০৫ মিলিগ্রাম, চর্বি ০.২ গ্রাম, ভিটামিন সি ১৫ মিলিগ্রাম, আঁশ ১.২ গ্রাম, অন্যান্য খনিজ ০.৯ গ্রাম, খাদ্যশক্তি ৫৭ ক্যালরি।

গাজরের উপকারিতাঃ গাজরের রয়েছে অসাধারন কিছু উপকারিতা আসুন জেনে নিইঃ
১. গাজরে আছে বিটা ক্যারোটিন, যা লিভারে গিয়ে ভিটামিন এ-তে রূপান্তর হয়। পরে সেটি চোখের রেটিনায় গিয়ে দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।
২. গাজরে বিদ্যমান ফ্যালক্যারিনল ও ফ্যালক্যারিডিওল উপাদান ক্যান্সারের ক্ষতিকর কোষ গঠনে বাধা দিতে সক্ষম। আবার সংক্রমণ রোধেও গাজর খুব কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে।
৩. গাজরের এন্টি-অক্সিডেন্ট ত্বককে সুন্দর ও টানটান করে উজ্জ্বল করে।
৪. গাজরে রয়েছে ক্যারোটিনয়েড যা হৃৎপিন্ডকে সুস্থ ও স্বাভাবিক রাখে সেই সাথে হৃৎপিন্ডের বিভিন্ন। সমস্যা দুর করে এবং কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে।
৫. গাজরের কিছু পরিমাণ আয়রন ও ক্যালসিয়াম দাঁতকে করে মজবুত

For more about natural products Click here

Share this post

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


error: Content is protected !!